খানসামায় বেড়েছে পাটের আবাদ

প্রকাশিত: ৪:৩৪ অপরাহ্ণ, জুলাই ২, ২০২১
মোঃ জসিম উদ্দিন;খানসামা (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ-
দিনাজপুরের খানসামা উপজেলায় পাট চাষে কৃষকের আগ্রহ বেড়েছে। চলতি মৌসুমে এ উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে পাট চাষের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১ হাজার ২শ ৫০ হেক্টর এবং অর্জিত হয়েছে ১ হাজার ৩শ ২০ হেক্টর জমিতে।
এলাকার পাট চাষীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, ১ বিঘা জমিতে পাট চাল করতে খরচ হয় ৮ থেকে সাড়ে ৯ হাজার টাকা। আর ফলন ভালো হলে বিঘা প্রতি ১২ থেকে ১৪,১৫ মণ পাট পাওয়া যায়। তাছাড়া অন্যান্য ফসলের তুলনায় পাট চাষ বেশি হওয়ায় উপজেলার কৃষকেরা পাট চাষে ঝুঁকছেন।
ছাতিয়ান গড় গ্রামের কৃষক আলতাফ হোসেন বলেন,আমি গত বছর তিনি ৩ থেকে ৪ বিঘা জমিতে পাট আবাদ করেছিলেন। প্রায় ৪০ থেকে ৪৮ মণ পাট হয়েছিল। গড়ে তিনি পাট বিক্রি করেছিলেন ২৬০০ টাকা থেকে ২৮০০ টাকা পর্যন্ত। দাম ভালো পাওয়ায় তিনি এবছর ৫ বিঘা জমিতে পাট আবাদ করেছেন। তিনি আশা করছেন এবারও পাটের ভালো দাম পাবেন।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা বাসুদেব রায় মোবাইল এর মাধ্যমে জানান, গত বছরের চেয়ে এ বছরে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি জমিতে পাট চাষ হয়েছে। কৃষকরা যাতে যথাযথভাবে এবং স্বল্প খরচে উচ্চ ফলনশীল পাট উৎপাদন করতে পারে এ জন্য প্রতিনিয়ত কৃষকদের পরামর্শ দিয়েছেন কৃষি কর্মকর্তারা। বিভিন্ন রোগবালাই থেকে পাটকে মুক্ত রাখতেও পরিমিত পরিমাণ ওষুধ প্রয়োগের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এসব কারণে পাটের ফলনও ভালো হয়েছে।আশাকরি এবার এ উপজেলায় গত বছরের চেয়ে বেশি পাট উৎপন্ন হবে। কৃষকদের উৎপাদিত পাটের ন্যায্য দাম নিশ্চিত করতে হলে সরকারিভাবে পাটের দাম নির্ধারণ করতে হবে। তাহলে কৃষকরা ন্যায্য দাম পাবে এবং আগামীতেও পাট চাষে তাদের আগ্রহ আরও বাড়বে।
Print Friendly, PDF & Email