লালমনিরহাটে পূর্বশত্রুতার জেরে হামলা, আহত-১

প্রকাশিত: ১১:৫১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০২১

রাসেল ইসলাম, লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ

লালমনিরহাট সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নের ভোলার চওড়া এলাকায় পূর্ব শত্রুতা ও জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে গত ১১/০৯/২০২১ (শনিবার) প্রতিবেশীর হামলায় মশিউর রহমান (৩০) নামের একজন আহত হয়েছে। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বাদী মশিউর রহমান পিতা- আজাহার আলীর পরিবারের সাথে বিবাদী মোঃ মহাসিন আলী (৫২) মজনু (২৯) মোস্তাক (৩৬) সকলের পিতা-মৃত করিম। সাং-ধনঞ্জয় থানা ও জেলা লালমনিরহাট। সবাই একই সঙ্গবদ্ধ অপরাধী।

অভিযোগে উল্লেখিত বিবাদী গনের সাথে আমার ও আমার পরিবারের লোকজনের জায়গা-জমি বিষয়ে দীর্ঘদিন হইতে মামলা-মোকদ্দমা চলিয়া আসিতেছে। এমতাবস্থায় গত ১১/০৯/২০২১ তারিখ রাত অনুমান ১০টায় আমি রাতের খাওয়া শেষে নিজ ঘরে ঘুমাইতে গেলে হঠাৎ চোর চোর চিৎকার চেঁচামেচি শুনিয়া আমি বাড়ি থেকে বের হইয়া ঘটনা কি জানার জন্য ২৫০ গজ দক্ষিনে জনৈক মিজানুরের দোকানে পৌছামাত্র বিবাদী গন সেই পূর্ব বিরোধের জের ধরে হাতে লাঠি, লোহার রড, ধারালো ছোরা ইত্যাদি অস্ত্রেশস্ত্রে সজ্জিত হইয়া আমার সামনে আসিয়া আমার পথ রোধ করে আমাকে আমার চতুর্দিকে ঘিরে ফেলে ওই সময় ৩ নং বিবাদী বলে ব্যাটা জমির বড় দেওয়ানী হইচিস আজ তোর জমির দেওয়ানী করার সাধ মিটিয়ে দিবো একথা বলে উক্ত বিবাদী অপর বিবাদীগনকে আমাকে মেরে ফেলার জন্য বলিলে সেই হুকুম পাওয়া মাত্র ১ও২ নং বিবাদী সহ আরও ৪-৫ জন মিলে আমার উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এ সময় ১নং বিবাদী আমাকে হত্যা করার উদ্দেশ্যে তাহার পা দিয়ে আমার বুকে লাথি মারলে আমি মাটিতে লুটিয়ে পড়ি। সেই সময় সকল বিবাদী গন আমাকে এলোপাতাড়ি কিল-ঘুষি লাথি ও মারপিট শুরু করে ওই সময় আমি আত্মরক্ষার চেষ্টা করিলে ২নং বিবাদী তাহার হাতে থাকা লাঠি দিয়ে আমাকে এলোপাতাড়ি মারপিট শুরু করে সেই সুযোগে ১নং বিবাদী আমার নিকট থাকা আমার ব্যবহৃত একটি ভিভো মোবাইল ফোন কাড়িয়া নেয়। আমি আত্ম চিৎকার করিতে থাকলে আমার আত্মচিৎকার ও ঘটনার শোরগোল শুনিয়া স্থানীয় সাক্ষী (১) মোঃ জাহাঙ্গীর আলম (৩৫) পিতা- নুর মোহাম্মদ (২) মোঃ রুহুল আমিন (২৯) পিতা- সোলেমান আলী সাং নওদাবস (৩) মোঃ মাইদুল ইসলাম (২৭) পিতা-জিয়ারত আলী মাস্টার সাং গবাই (৪) মোঃ শাহিনুর ইসলাম (২৮) পিতা- জাবেদ আলী সাং নওদাবস, (৫) মোঃ শফিকুল ইসলাম (৩৩) পিতা-সুলতান আলী সাং নওদাবস সর্ব থানা ও জেলা লালমনিরহাট। আমার চিৎকার চেঁচামেচি শুনে আশেপাশের আরও অনেক লোকজন এগিয়ে আসে তারা ওই ঘটনা দেখে শুনে এবং উক্ত বিবাদী গনের নিকট হইতে আমাকে মূমুর্ষূ অবস্থায় উদ্ধার করে। ওই সময় বিবাদীগনের নিকট থাকা ধারালো ছোরা, লাঠি ও লোহার রড উচু করিয়া আমাকে ভবিষ্যতে সুযোগমতো পাইলে মেরে ফেলা সহ আরো নানা প্রকার ভয়-ভীতি ও হুমকি দিয়া ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়। সে ঘটনার পর আমার বুকে প্রচণ্ড ব্যথা অনুভব হইলে ১ ও ৪ নং সাক্ষী দ্রুত মোটরসাইকেল যোগে আমাকে অসুস্থ অবস্থায় লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। আমি লালমনিরহাট সদর হাসপাতালের জরুরি রেজিঃ নং- ১৬০৩৩/৫, তারিখ ১২/০৯/২০২১ ইং মোতাবেক চিকিৎসা গ্রহণ করি

এ বিষয়ে অভিযোগকারী মশিউর রহমান বলেন, আমি এলাকার সহজ সরল নিরীহ মানুষ। আমার উপর নির্মম ভাবে হামলা করা হয়েছে। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

১নং বিবাদী মোঃ মহসীন আলীর সাথে কথা বললে তিনি বলেন, মশিউর রহমান আমার এলাকার ভাতিজা আপোষ মিমাংসার জন্য কথা বলা হয়েছে।

এ ঘটনায় লালমনিরহাট সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শাহ আলম জানান, এ রকম একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে

Print Friendly, PDF & Email