শিক্ষার্থীদের আগমনে যেন নতুন করে প্রান ফিরে পেয়েছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলো

প্রকাশিত: ২:১৩ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২১

ইয়াছির আরাফাত সবুজ, শিক্ষার্থী জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

 প্রায় দেড় বছর পর আবার সেই চিরচেনা স্কুলে ফিরে আসলাম, এ এক অন্য রকম অনুভূতি রাতে ঠিকমতো ঘুমাতেও পারছিলাম না। ছোটবেলায় যখন প্রথম স্কুলে গিয়েছিলাম ঠিক সেইরকম অনুভূতি হচ্ছিল। স্কুলে এসে আবারো সেই পুরোনো বন্ধুদের সাথে দেখা। যদিও করোনার কারণে এখন আর আগের মত স্কুল লাইফটা পাবো না তবে দীর্ঘ দেড় বছর পর ক্লাস রুমে আসতে পেরে সত্যি  অনেক আনন্দিত লাগতেছি।

নাকিবুল হাসান অনিক

দশম শ্রেণি(এসএসসি-২০২১)

গংগার হাট এম.এ.এস. উচ্চ বিদ্যালয়, ফুলবাড়ি, কুড়িগ্রাম

 

বন্ধুবান্ধবদের সাথে দেখা হলো অনেক মাস পর, স্কুলে অবশ্য কঠোরতা মেইনটেইন করে মাস্ক আর দুরত্ব বজায় রাখতে হয়েছে। স্যাররাও অনেক দিন পর আমাদের দেখতে পেয়ে খুশি, গল্পগুজব করলো। সবার সাথে দেখা করলাম। মানে এত দিন পর দেখা করে সত্যি ভালো লাগছে।

অন্তরা হালদার,

দশম শ্রেণি(এসএসসি-২০২১)

বড়পুকুরিয়া কোল মাইন স্কুল,চৌহাটি ,পার্বতীপর ,দিনাজপুর

 

দীর্ঘ ১৮ মাস পরে কলেজ প্রাঙ্গণে আবার ফিরে যেতে পারায় অনুভূতিটা প্রকাশ করার বাইরে, মনে হলো নিজের অস্তিত্ব ফিরে পিয়েছি! এই মহামারীর পরেও যে আবার আমরা সবাই এক হতে পারবো এটাই হয়তো আমাদের কল্পনাতেও ছিলো নাহ। শুরু হলো আবার স্বপ্নের পথ চলা। এবার স্বপ্ন পূরণ এর পালা।

ঐশী রায়

দ্বাদশ শ্রেণী

শহীদ স্মৃতি কলেজ শশিকর, মাদারীপুর।দীর্ঘ বন্ধের পরে আজকে স্কুলে যাওয়ার মত সুযোগ হলো। স্কুল টা আসলেই নিজের আরেকটা পরিবার ,  আর সহপাঠী ও শিক্ষক রা এই পরিবারের প্রধান ভূমিকা। তার সাথে স্কুলের আঙ্গিনাও নিজের বাসার মত একটা স্বস্তির জায়গা।

করোনা কালীন সময়ে দীর্ঘকাল স্কুল বন্ধের পালা শেষে আজকে মিলন উৎসবমুখর পরিবেশে আমাদের আয়োজনের মাধ্যমে বরণ করা হয়েছিলো। ব্যনার পোস্টারের সাথে বেলুনসহ ফিতা কেটে আমাদের আবরণ করা হয়েছিলো। তারপর স্যানাটাইজ ও টেম্পারেচার চেক করা হলো, মাস্ক পরিধানে সবাইকে আবারো সর্তকতা অবলম্বন করতে বলা হলো, সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এসেম্বলি করানো হয়েছিলো। ক্লাশ রুমে প্রিয় শিক্ষকরা এসে আমাদের সাথে মানসিক অবসাদ দূর করে সাংস্কৃতিক কিছু মুহুর্তের মধ্যে শুরু করে আমাদের মনকে উৎফুল্ল করলেন এবং আমাদের মানসিক সুস্থতার কথা বিবেচনা করে পড়াশোনার পরিসর ও পরিবেশ নিয়ে কিছুটা উপদেশ দিলেন। অবশেষে সংক্ষিপ্ত সময়ের মধ্যে আনন্দময় ও সামাজির দূরত্ব বজায় রেখে ক্লাশ শেষে বাড়ি ফেরা। দ্রুত এই করোনাকালীন সময় পার হোক এবং সকলে সুস্থ থাকুক।

নামঃশাহাজাদী মজুমদার

দশম শ্রেণি(এসএসসি-২০২১)

স্কুলঃ ভিকারুননিসা নুন স্কুল, English Version

 

সুদীর্ঘ ১৮ মাস এর বিরতি ভেঙে নিজের সেই চিরচেনা বিদ্যাপীঠের স্পর্শে এসে মনে স্বতঃস্ফূর্ততার উদ্ভব হয়েছে।এক কঠিন সময় পার করে  সেই স্মৃতিমাখা প্রাঙ্গন, চেনা কোলাহল ও প্রিয় মানুষগুলোর মাঝে নিজেকে অন্যভাবে খুঁজে পেলাম।পুরোনো সব গ্লানিকে পিছনে ফেলে,নতুন এক অগ্রযাত্রা শুরু হলো,সামনে এগিয়ে যাওয়ার প্রাণবন্ত ইচ্ছাশক্তির উন্মোচন হলো

আবিদ

দশম শ্রেণি(এসএসসি-২০২১)

বরিশাল জিলা স্কুল,বরিশাল

 

লম্বা যুদ্ধ শেষে পতাকা দেখার মত অনুভূতি ছিলো দীর্ঘকালীন বন্ধ ও লকডাউন সময় শেষে বিদ্যালয়ে ফেরা। স্কুলে প্রবেশের আগেই টেম্পারেচারের চেক,হ্যান্ড স্যানিটাইজ, মাস্ক পরিধানে জোরালো সতর্কতা, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ইত্যাদি খেয়াল করে প্রবেশ করানো হয়েছিলো। আজকের প্রথম ক্লাশে শিক্ষক ও বন্ধুদের দেখে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েছিলাম। সাংস্কৃতিক মনোনিবেশ নিয়ে ক্লাশগুলো শুরু হয়েছিলো, স্যারদের উপদেশ, বানী আর সুস্থতা বজায় রেখে পড়াশোনায় আবারো মনোযোগী হওয়ার ক্ষেত্রে মোটিভেট করছিলেন। অনেকদিন পরে নিজের চেনা ক্লাশরুম বেঞ্চ ও বন্ধুগুলো কে দেখে আসলেই দীর্ঘদিনের বিষাদ দূর হলো।

নামঃ সাদিম

স্কুলঃ আইডিয়াল স্কুল (মুগদা ব্রাঞ্চ)

১০ম শ্রেনী

Print Friendly, PDF & Email