টেলিভিশন অভিনেত্রী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করার পথে অগ্রসর হচ্ছেন নবীন মডেল- তাহমিনা মোনা

প্রকাশিত: ৩:২৩ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২১, ২০২১

 নবীন মডেল ও অভিনেত্রী তাহমিনা মোনা। মঞ্চনাটকে রয়েছে তার সরব উপস্থিতি। সম্প্রতি তিনি মডেলিং করেছেন নতুন একটি বিজ্ঞাপনচিত্রের। মোনা জানান, টাইগার মালচিং পেপারের বিজ্ঞাপনচিত্র এটি। বিজ্ঞাপনচিত্রটি নির্মাণ করেছেন বেলাল ইমু। আর এটি মোনার পঞ্চম বিজ্ঞাপনচিত্র। এর আগে তিনি পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের জন্মনিরোধী পিলের বিজ্ঞাপনচিত্র, আইএফআইসি, এবং বিটিভির আইন আদালত শীর্ষক দুটি বিজ্ঞাপনচিত্রে মডেল হয়েছেন।

মোনা জানান, সম্প্রতি তিনি “কথা দিলাম” নামের একটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। এই ছবি, বিজ্ঞাপনচিত্র এবং নাটকে কাজসহ শোবিজ মিডিয়ার অন্যান্য বিষয়ে এই প্রতিবেদকের সঙ্গে মোনা কথা বলেছেন।

মোনা বলেন, টাইগার মালচিং পেপারের বিজ্ঞাপনচিত্রে মডেলিং করার আগে আমি কথা দিলাম ছবিতে অভিনয় করেছি। জি. স্বাধীন পরিচালিত এই ছবিতে আমার অভিনীত চরিত্রের নাম সাথী। এছাড়াও গেলো ১৬ অক্টোবর রাত নয়টায় আমার অভিনীত দূর্গা পূজার বিশেষ টেলিফিল্ম “নব বৃন্দাবন” মাছরাঙা টেলিভিশনে প্রচারিত হয়েছে।

জানা গেছে, দূর্গা পূজার এই টেলিফিল্মটি দর্শক কর্তৃক দারুনভাবে প্রশংসিত হয়েছে। লিটু করিমের পরিচালনায় এটি মোনা অভিনয় করেছেন বৌদি চরিত্রে। তার চরিত্রানুগ সাবলীল অভিনয় দর্শকদের মন জয় করেছে।

মোনা আরো জানান, তার ছোটবেলার প্রথম ইচ্ছে ছিল ভালো শিক্ষক হওয়ার। কিন্তু সাংস্কৃতিক অঙ্গনের সঙ্গে ছোটবেলা থেকেই জড়িত ছিলেন নাচ, কবিতা/ছড়া পাঠ, রচনা প্রতিযোগিতা ইত্যাদির মাধ্যমে। তিনি বলেন, সাংস্কৃতিক অঙ্গনের সঙ্গে জড়িত থাকার কারণেই আমি যখন একটু একটু করে বড় হতে থাকি, আমার স্বপ্নও ধীরে ধীরে পরিবর্তন হতে থাকে। পরিণত বয়সে তাই সংস্কৃতি কর্মীই হয়ে গেলাম। যদিও আমি এখনও পড়াশোনা করছি। দেখা যাক শৈশবের স্বপ্ন আবার নতুন করে উঁকি মারে কিনা ?

সপ্তম শ্রেণীতে পড়ার সময় থেকে মোনার ছোটদের ছড়া লেখা শুরু। এরপর কবিতা লিখতে থাকেন তিনি। বর্তমানে “প্রিয়বাংলা” পত্রিকার সাহিত্য সংঘের সদস্য তিনি। এছাড়াও মানবকন্ঠ, পথিক, গণশক্তি, নিউজ এফএমসহ সাহিত্য পাতায় বেশ কিছু কবিতা প্রকাশিত হয়েছে।

মঞ্চ নাটকে অভিনয় প্রসঙ্গে মোনা বলেন, আমি ২০১৭ সালে প্রথম “পালাকার” থিয়েটার পাঠশালার মাধ্যমে অভিনয়ের সঙ্গে যুক্ত হই। পালাকার এর নাট্যকর্মী হিসাবে ছিলাম দুই বছর। বাংলাদেশ শিশু একাডেমির “মূকাভিনয়” এর মাধ্যমে ২০১৮ প্রথম মঞ্চ নাটকে অভিনয় করা হয়। বর্তমানে আমি “আরণ্যক নাট্যদল”এর সঙ্গে যুক্ত। আছি, ২০১৯ এ যুক্ত হয়ে ২০২০ এ নাট্যকর্মী হিসাবে আরণ্যকে, “বিদ্যাপিতা কিংবা সময়ের গল্প” নাটকে অভিনয় করেছি।

মোনা জানান, তার প্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান এবং নূসরাত ইমরোজ তিশা। এদের অভিনয় দেখেই মূলত একজন টেলিভিশন অভিনেত্রী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করার পথে অগ্রসর হচ্ছেন তিনি। তাইতো প্রথম মিডিয়ায় অভিনয় করেন “Rare In Here” নামের একটি শর্টফিল্ম এ। সেটিতে মোনার চরিত্রের নাম ছিল নিতু। তার এই অভিষেক কাজটি অস্ট্রলিয়ার একটা ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে প্রদর্শিত হয়েছে। টিভিতে সম্প্রচারিত তার প্রথম টেলিফিল্ম “রোদেলার নীল খাম” (চ্যানেল আইতে)। এতে নাজু চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন তিনি।

অভিনেত্রী হয়ে ওঠা প্রসঙ্গে এই প্রতিবেদককে মোনা বলেন, আমি এখনও অভিনয়টা কেবল মাত্র শিখছি, আজীবন শিখে যেতে চাই। আগামীতে নতুন নতুন চরিত্রে কাজ করতে চাই হোক সেটা যে কোন বয়সের চরিত্র। নানামুখী বিভিন্ন চরিত্রে আমৃত্যু অভিনয় করে যাওয়ার ইচ্ছা মনে লালন করেই আমার অভিনেত্রী হওয়ার পথ পরিক্রমায় সামিল হওয়া।

নিজের সাম্প্রতিক কাজ নিয়ে মোনা বলেন, গেলো রোজার ঈদে আমার অভিনীত আবদুল্লাহ আল মামুনের ‘ভাইরাল বিয়ে’ নাটক প্রচারিত হয়েছে। এতে আমি সহকারি পরিচালকের দায়িত্বও পালন করি। শুটিংয়ে পায়ে ফ্র্যাকচার হওয়ার কারনে প্রায় এক মাস বিশ্রামে ছিলাম। বিশ্রাম কাটিয়ে সুমন আহমেদের নির্দেশনায় একটি বিজ্ঞাপনচিত্রের মাধ্যমে কাজে ফিরেছিলাম। গেলো ১০ জুন আমার অভিনীত পারভেজ জুনায়েদের ‘ঝাল টক মিষ্টি’ শিরোনামের একটি ছবি শিল্পকলা একাডেমির তৃতীয় বাংলাদেশ স্বল্পদৈর্ঘ্য ও প্রামাণ্য চলচ্চিত্র উৎসবে প্রদর্শিত হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email