রংপুরে এক সাথে সাথে তিন সন্তানের জন্ম দিলেন এক নারী

প্রকাশিত: ১:১৭ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ২৩, ২০২১
আবু রাসেল. —
রংপুর নগরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে একসঙ্গে তিন ছেলে সন্তানের জন্ম দিয়েছেন সোহানা-বাদল নামে এক দম্পতি। আশঙ্কামুক্ত না হওয়ায় নবজাতকদের ৭২ ঘণ্টার পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৮ নভেম্বর) দুপুরে সিজারের মাধ্যমে তিন সন্তানের জন্ম দেন গৃহবধূ সোহানা পারভীন। তিনি মিঠাপুকুর উপজেলার বৈরাতিহাট পিয়ার এলাকার বাদল মিয়ার স্ত্রী। সোহানা-বাদল দম্পতির সংসারে ১২ বছরের আরও একটি ছেলে ও ৬ বছরের একটি মেয়ে সন্তান রয়েছে। এর মধ্যে স্ত্রী সোহানা পারভীন আবারও অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর জানতে পারেন তার গর্ভে তিনটি সন্তান রয়েছে। পরে চিকিৎসকের পরামর্শে সোহানা পারভীনকে বৃহস্পতিবার দুপুরে রংপুর নগরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে সিজারের মাধ্যমে তিন ছেলে সন্তানের জন্ম দেন তিনি। হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. তুলি রহমান জানান, অপূর্ণ বয়সেই সন্তান তিনটি সিজারের মাধ্যমে জন্ম দেওয়া হয়েছে। মা ভালো থাকলেও নবজাতকরা আশঙ্কামুক্ত নন। এ কারণে ওই তিন নবজাতক ৭২ ঘণ্টার পর্যবেক্ষণে রয়েছে। সোহানা পারভীনের স্বামী বাদল মিয়া জানান, তিনি ডিগ্রি পাস করার পর একটি ওষুধ কোম্পানিতে রিপ্রেজেন্টিভের চাকরি করতেন। করোনার সময়ে চাকরি চলে যায়। বর্তমানে একটি ওষুধের দোকানে কর্মচারী হিসেবে কাজ করছেন। নবজাতকদের চিকিৎসা করার মতো তার আর্থিক সামর্থ্য নেই। বাদল আরও জানান, একসঙ্গে তিন ছেলে সন্তান জন্ম হওয়ায় তারা অনেক খুশি। কিন্তু সন্তানদের ভবিষ্যতের কথা ভেবে পুরো পরিবার চিন্তিত। বর্তমানে স্ত্রী ও নবজাতকদের চিকিৎসার খরচ ও তাদের ভরণপোষণ করাটা কষ্টকর হয়ে দাঁড়াবে। এজন্য তিনি একটি চাকরি পেতে সহায়তা চেয়েছেন।
Print Friendly, PDF & Email