ইউরো-বাংলা প্রেসক্লাবের ‘লাল-সবুজের পতাকা বিশ্বজুড়ে আনবে একতা‘-শীর্ষক সভা

প্রকাশিত: ৪:১১ অপরাহ্ণ, মার্চ ২৬, ২০২২

সৈয়দ মুন্তাছির রিমন ফ্রান্স(প্যারিস) থেকে:

ইউরো-বাংলা প্রেসক্লাব কর্তৃক মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে ‘‘লাল-সবুজের পতাকা বিশ্বজুড়ে আনবে একতা‘‘ র্শীষক ভার্চুয়াল আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবস ৫১তম উদযাপনের প্রথম প্রহরে অনলাইন আলোচনায় স্বাধীনতার গুরুত্ব তুলে ধরে বক্তারা বলেন ৭১ সালে স্বাধীনতার চেতনা ছিল অসাম্প্রদায়িক চেতনা। স্বাধীনতার মূলমন্ত্র চারটি স্তস্তের যথাযথ বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশকে উন্নতির শিখরে নিয়ে যাওয়া সম্ভব। দূর্নীতিমুক্ত, শোষন মুক্ত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে সবাই ঐক্যমত পোষন করেন। দলীয় সংর্কীনতা ও অন্ধ আনুগত্য থেকে বেরিয়ে উদার মানসিকতা নিয়ে সত্যিকার দেশপ্রেমে উব্দুদ্ধ হতে পারলেই স্বাধীনতার চেতনা বাস্তবায়িত হবে এবং এর ধারাবাহিকতায় আগামীর বাংলাদেশ আরোহন করবে সাফল্যের চুড়ান্ত শিখরে। ইতিমধ্যে আজ এই শিখরে পৌছার যাত্রা শুরু হয়ে গেছে। ‘স্বাধীনতা অর্জনের চেয়ে স্বাধীনতা রক্ষা করা কঠিন‘ এ সত্যকে উপলদ্ধি করে দেশের জন্য আমাদের সবাইকে একযোগে কাজ করে যেতে হবে। সকল অন্যায় ও অবিচার কিংবা অমানবিকতা অবসান ঘটিয়ে দেশকে এগিয়ে নিতে হলে যার যার অবস্থান থেকে মুক্তির সংগ্রাম চালিয়ে যেতে হবে বক্তারা অভিমত প্রদান করেন।

ইউরো-বাংলা প্রেসক্লাবের সভাপতি তাইজুল ইসলাম ফয়েজ এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন চৌধুরী মুন্নার পরিচালনায় ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে বক্তব্য রাখেন আন্তর্জাতিক কলামিস্ট ও আয়ারল্যান্ডের কর্মরত চিকিৎসক ডা. জিন্নুরাইন জায়গীরদার, লন্ডন থেকে  সিনিয়র সাংবাদিক নুরে আলম রব্বানী, ইউরোপ বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক, সাংবাদিক ও লেখক সৈয়দ মুন্তাছির রিমন, সহ-সভাপতি  তাজ উদ্দীন (ফ্রান্স), যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এ কে আজাদ (আয়ারল্যান্ড),অভিবাসন বিষয়ক সম্পাদক সিদ্দিকুর রাহমান(স্পেন), মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক হামিদুল ইসলাম (ফিনল্যান্ড) ইউরো-বাংলা প্রেসক্লাব ফ্রান্সের সাধারণ সম্পাদক সোহেল আহমদ, গ্রীসের যুগ্ম  সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান মুন্না প্রমুখ। 

বক্তারা আরো বলেন আমরা প্রবাসীরা একাত্তর সালে স্বাধীনতা সংগ্রামে যেমন অবদান রেখেছি। সেই ধারাবাহিকতায় মুক্তির সংগ্রামে আরো অবদান রাখতে হবে। স্বাধীনতার চেতনা ধারণ করে লাল-সবুজের পতাকা কে বিশ্বের বুকে শান্তির বাহক ও ধারক হিসাবে প্রতিষ্ঠা করা প্রবাসীদের নৈতিক দায়িত্ব। সভ্য জাতি হিসেবে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবার সময় এখন। মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে আত্মত্যাগকারীদেরকে আমাদের স্মরণ রাখতে হবে এবং তাদেরকে যথার্থ মূল্যায়ন করা আমাদের কর্তব্য। প্রবাসে বেড়ে ওঠা নতুন প্রজন্মের মধ্যে দেশপ্রেম ও স্বাধীনতার ইতিহাস জাগান দিতে হবে। এছাড়া অনুষ্টানে স্বরচিত কবিতা পাঠ করেন একে আজাদ।

Print Friendly, PDF & Email