দৌলতপুরে অদৃশ্য কারনে রাস্তার গাছ নিধন

প্রকাশিত: ১:১৩ পূর্বাহ্ণ, মে ১২, ২০২২
দৌলতপুর (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি ঃ
কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে বিভিন্ন রাস্তারসামাজিক   বনায়ন   কর্মসূচীর   আওতায়   থাকা   অর্ধশত   বছরের   বৃক্ষবিভিন্ন অজুহাতে নিধন চলছে।জানাগেছে   সম্প্রতি   উপজেলার   পিয়ারপুর   ইউনিয়নের   আমদহ     গ্রামেরজালাল মাষ্টারের বাড়ির সামনে থাকা অর্ধশত বছরের কড়ুই গাছটি কাটাহয়েছে।
এলাকার যুবক জনি জানান হামু চৌকিদার গত ৭ মে বেলা সাড়ে১২দিকে   লোকজন   নিয়ে   কড়ুুই   গাছটি   কেটে   ফেলে,   সে   জানায় চেয়ারম্যান সোহেলরানা বুলবুল গাছটি কাঁটতে বলেছে, এ ব্যাপারে কথাবললে,   চেয়ারম্যান   বিষয়টি   চেপে   যেতে   বলে।   ঘটনা   অন্য   রকম   বুঝে,এলাকাবাসী   জেলা   প্রসাশক   মহদয়,উপজেলা   নির্বাহী   অফিসার   আব্দুলজাব্বার   ও   বন   কর্মকর্তাকে   বিষয়টি   অবহিত   করেন।   বন-বিভাগকর্মকর্তা মুরাদ হোসেন খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে এসে বিশাল বৃক্ষ দেখেহতবাক হন। তিনি অফিসে খবর নিয়ে জানতে পারেন, জয়ভোগা কলনীপাড়াএলাকায় মাতুর বাড়ির সামনে একটি গাছ ঝড়ে উপড়ে গেলে, সে গাছটিকাটার   অনুমতি   দেওয়া   হয়।   বর্তমানে   গাছটি   আরক্ষিত   অবস্থায়   পড়েরয়েছে। এদিকে চৌকিদার ও গাছ কাটা লোকজন পরিস্থিতি বেগতিক দেখেপালিয়ে যায়। জানাগেছে দৌলতপুর বন-বিভাগ এর মাঠ কর্মী গাছ খেকোকবীর, এ কাজ গুলি করিয়েছে। প্রায় দেখা গেছে বড়বড় গাছ গুলি অদৃশ্যকারণে   কাঁটা   হয়,   জিজ্ঞাসা   করলে   বন-বিভাগের   নির্দেশে-উপজেলারনির্দেশে কাঁটা হচ্ছে। প্রকৃত পক্ষে বন-বিভাগে কবিরের মত একশ্রেণিরকর্মচারীর যোগসাজোসে  ও প্রভাবশালীদের  নির্দেশে  নীরবে  বিভিন্ন রাস্তার বৃক্ষ নিধন চলছে। এলাকাবাসী তদন্ত পূর্বক বৃক্ষ কর্তন রোধ প্রকৃত দোষীদের চিহ্নিত করে শাস্তি দাবী করেছেন।
Print Friendly, PDF & Email